আপনার অবস্থান
মুলপাতা > অন্যান্য সংবাদ > ২য় বারের মত গ্লোবাল আইসিটি এক্সেলেন্স অ্যাওয়ার্ড পেল ডিআইইউ

২য় বারের মত গ্লোবাল আইসিটি এক্সেলেন্স অ্যাওয়ার্ড পেল ডিআইইউ

বিভিন্ন দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সংগঠনগুলোর জোট ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি এন্ড সার্ভিসেস এলায়েন্সের (উইটসা) ‘গ্লোবাল আইসিটি এক্সেলেন্স অ্যাওয়ার্ড ২০১৭’ পেল ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।

গত মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) তাইওয়ানের তাইপেতে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক তথ্যপ্রযুক্তি সম্মেলন-২০১৭ এ পুরষ্কার ঘোষণা করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ সবুর খান পুরস্কারটি গ্রহণ করেন। তাইওয়ানের প্রধানমন্ত্রী উইলিয়াম লাই (লাই চিং তে) এর উপস্থিতিতে উইটসা প্রসিডেন্ট ইউভনি চাইইউ পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে মোঃ সবুর খানের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন তাইওয়ানের অর্থমন্ত্রী শেন জং চিন, তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী উ সাং সং এবং বিশ্বের বিভিন্ন দেশের তথ্যপ্রযুক্তিখাতের শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তিবর্গ।

বিশ্বের ৮০টি দেশের তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা এ পুরস্কারের জন্য বিশ্বের বিভিন্ন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিকে মনোনয়ন প্রদান করে থাকেন।

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশে একটি পরিপূর্ন ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন এবং তথ্যপ্রযুক্তির দৃশ্যমান ও কার্যকর ব্যবহার, উল্লেখযোগ্য মানুষকে তথ্যপ্রযুক্তির সুফল প্রদান, আইসিটি ডিগ্রির কার্যকারিতা, বিভিন্ন পর্যায়ে তথ্যপ্রযুক্তির উদ্ভাবনী ব্যবহার বৃহৎ জনগোষ্ঠীকে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারে সচেতনতা ও অনুপ্রেরনা প্রদানের মাধ্যমে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে অবদান রাখার স্বীকৃতি, আইসিটি খাতে দক্ষ মানবসম্পদ উন্নয়ন, গ্রামীণ শিক্ষার্থীদের তথ্যপ্রযুক্তিতে অন্তর্ভুক্তি, প্রতিটি শিক্ষার্থীর হাতে একাডেমিক কর্মকান্ড সুষ্ঠভাবে সম্পাদনের জন্য ‘ওয়ান স্টুডেন্ট ওয়ান ল্যাপটপ প্রোগ্রাম এর আওতায় ল্যাপটপ তুলে দেওয়া এবং আইটি প্রতিভা অন্বেষনের প্রতিযোগিতা আয়োজনের পাশপাশি জব ট্রেকিং সিস্টেম, লার্নিং ফিডবেক সিস্টেম, অনলাইন টিচিং ইভালুয়েশন সিস্টেম ইত্যাদি বিষয় গুলোর ব্যাপক প্রচলনের জন্য ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিকে এ সম্মাননা দেয়া হয়।

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশে একমাত্র এবং দ্বিতীয়বারের মত এ সম্মানা অর্জন করে যা বিশ্বব্যাপী তথ্যপ্রযুক্তি খাতের ‘নোবেল’ হিসাবে খ্যাত।

এর আগে ২০১৪ সালে মেক্সিকোর গুয়াদালাজারায় অনুষ্ঠিত উইটসার ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন আইসিটির জাকজমকপূর্ণ আয়োজনে প্রথমবারের মত ড্যাফোডিলইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি এ পুরস্কার পাওয়ার গৌরব অর্জন করে।

WITSA তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের সর্ববৃহৎ আন্তর্জাতিক সংগঠন। বিশ্বের ৮০টি দেশের জাতীয় পর্যায়ের বাণিজ্য সংগঠন WITSA-র সদস্য। বিশ্বের প্রায় ৯০% আইটির বাজার WITSA-র সদস্যদের নিয়ন্ত্রণে।

‘মেরিট উইনার ক্যাটাগরিতে’ বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির মনোনয়ন নিয়ে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বিশ্বের খ্যাতনামা আন্তর্জাতিক সংগঠনসমূহের সাথে প্রতিযোগিতা করে এ পুরস্কার অর্জন করে। (প্রেস বিজ্ঞপ্তি)

Comments

comments

একই ধরণের সংবাদ