আপনার অবস্থান
মুলপাতা > অন্যান্য সংবাদ > রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বিতর্ক প্রতিযোগিতায় নর্দান বিশ্ববিদ্যালয় জয়ী

রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বিতর্ক প্রতিযোগিতায় নর্দান বিশ্ববিদ্যালয় জয়ী

গত ৫ অক্টোবর সার্চ ফর হিউম্যানিটি ফাউন্ডেশন এর আয়োজনে নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর অডিটোরিয়ামে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে এক বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দেশের খ্যাতিমান শিক্ষাবিদ, নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসাইন।

এ বিতর্ক প্রতিযোগিতায় নির্ধারিত বিষয়ের পক্ষে অংশগ্রহণ করে নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা এবং বিপক্ষ দল হিসেবে অংশগ্রহণ করে স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা। বিচারকদের রায়ে নর্দান ইউনিভার্সিটি এ বিতর্কে বিজয় লাভ করে। শ্রেষ্ঠ বিতার্কিক নির্বাচিত হন বিপক্ষ দলের বক্তা মাহফুজ আল আমীন।

প্রধান অতিথি বিজয়ী দলের হাতে চ্যাম্পিয়ন ট্রফি তুলে দেন। অতিথিবৃন্দেও নিকট থেকে সম্মাননা ক্রেস্ট গ্রহণ করেন বিতর্কে অংশগ্রহণকারী বিতার্কিকরা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. আনোয়ার হোসেন রোহিঙ্গা ইস্যুতে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মমতাময়ী ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে জাতি সংঘে একাধিকবার বিতর্ক হয়েছে। বিশ্বনেতারা মায়ানমারের এই নৃশংসতার নিন্দা জানিয়েছেন। কিন্তু সকল নিন্দা উপেক্ষা কওে মায়ানমার সরকার রোহিঙ্গাদের উপর জাতিগত নিধন অব্যাহত রেখেছে। তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে আমরা পাকিস্তান সরকার কর্তৃক নির্যাতিত হয়ে পার্শ্ববর্তী দেশে আশ্রয় গ্রহণ করেছিলাম। কাজেই আজকে যারা জীবন রক্ষার্থে বর্ডার পারি দিয়ে বাংলাদেশে আসছেন, মানবিক ও নৈতিক দায়িত্ববোধ থেকে আমাদেরকে তাদেও পাশে দাঁড়াতে হবে। প্রধান অতিথি বিতর্কে অংশগ্রহণকারী উভয় দলকেই পরিশীলিত ও যুক্তিনির্ভর বক্তব্য উপস্থাপনের জন্য সাধুবাদ জানান।

নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. আনোয়ারুল করিম এর সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে অন্যান্যেও মধ্যে বক্তব্য উপস্থাপন করেন, বাংলাদেশ ব্যাংক এর পরিচালক ড. জামালউদ্দিন আহমেদ, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি’র প্রফেসর সুলতান মাহমুদ জাকারিয়া, মানারাত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর রফিকুজ্জামান, নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সমন্বয়ক, সিনিয়র লেকচারার মোঃ গাজীউর রহমান প্রমূখ।

বক্তাগণ তাঁদের বক্তব্যে অংশগ্রহণকারী বিতার্কিকদের যুক্তি উপস্থাপনার প্রশংসা করেন। সেই সাথে রোহিঙ্গা ইস্যুতে নির্যাতিত মানবতার পাশে দাঁড়ানো এবং মায়ানমারের উপর চাপ অব্যাহত রাখতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

Comments

comments

একই ধরণের সংবাদ