আপনার অবস্থান
মুলপাতা > অন্যান্য সংবাদ > বাংলাদেশে ‘ওয়াটারশেড-এমপাওয়ারিং সিটিজেনস’ শীর্ষক কর্মসূচীর যাত্রা শুরু

বাংলাদেশে ‘ওয়াটারশেড-এমপাওয়ারিং সিটিজেনস’ শীর্ষক কর্মসূচীর যাত্রা শুরু

পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনার নীতি এবং অ্যাডভোকেসি শক্তিশালীকরণে আজ ২৮ মার্চ, ২০১৭ (মঙ্গলবার) রাজধানীতে পাঁচ বছরমেয়াদী “ওয়াটারশেড- এমপাওয়ারিং সিটিজেনস” শীর্ষক কর্মসূচীর যাত্রা শুরু হয়েছে।

বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন শক্তিশালী করার মাধ্যমে পানি, স্যানিটেশন ও হাইজিন (ওয়াশ) এবং সমন্বিত পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনাকে (আইডব্লিওআরএম) আরো উন্নত করার উদ্দেশ্যেই এ কর্মসূচী। যাতে করে সমাজের সবচেয়ে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীসহ সকলেই টেকসই সেবার সুফল পেতে পারে। এছাড়াও জনগণের তথ্যপ্রাপ্তির ক্ষমতা বৃদ্ধি করা এ কর্মসূচীর আরেকটি উদ্দেশ্য যাতে করে তারা নির্ভরযোগ্য, সঠিক তথ্যের ভিত্তিতে পরিবর্তনের জন্য কাজ করতে পারে।

ডিওআরপি এবং জেন্ডার অ্যান্ড ওয়াটার এলায়েন্স বাংলাদেশ’এর সহযোগিতায় বাংলাদেশে ওয়াটারশেড কর্মসূচীর নেতৃত্ব দিচ্ছে ওয়াটার এইড বাংলাদেশ। ডাচ মিনিস্ট্রি অব ফরেন এ্যাফেয়ার্স, আইআরসি, সিমাভি, ওয়েটল্যান্ডস ইন্টারন্যাশনাল এবং অকভো’এর সাথে অংশীদারিত্বমূলক একটি কর্মসূচী ওয়াটারশেড। বাংলাদেশ ছাড়াও ঘানা, ভারত, কেনিয়া, মালি এবং উগান্ডায় কর্মসূচীটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন নেদারল্যান্ডস’এর রাষ্ট্রদূত লিওনি মার্গারেটা কুলেনিয়ার। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ওয়াটার রিসোর্স প্ল্যানিং অর্গানাইজেশন (ডব্ল্ওিএআরপিও)’এর মহাপরিচালক মো. শারাফাত হোসেন খান এবং বাংলাদেশ ওয়াটার ডেভলপমেন্ট বোর্ডের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মো. মাহফুজুর রহমান। এছাড়া ওয়াটার এইড বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর মো. খায়রুল ইসলাম; ওয়াটার এইডের প্রগ্রাম এবং পলিসি অ্যাডভোকেসি বিভাগের ডিরেক্টর মো. লিয়াকত আলী, পিএইচডি এবং সিমাভি’এর সিনিয়র প্রগ্রাম অফিসার সারা আহরারি উপস্থিত ছিলেন।

ওয়াটার এইড বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর মো. খায়রুল ইসলাম তার স্বাগত বক্তব্যে বলেন, “উন্নয়নের ধারায় টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যসমূহ পরিবর্তনের সূচক হিসাবে কাজ করে। এবং ওয়াটারশেড সামগ্রিক পানি, স্যানটেশন এবং হাইজিন কর্মসূচীর জন্য জনগণের ক্ষমতায়নে গুরুত্ব দেওয়ার মাধ্যমে এই পরিবর্তন বাস্তবায়ন করে।”

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি মাহফুজুর রহমান তার বক্তব্যে এই কার্যক্রমের প্রসংশা করেন এবং সুশীল সমাজ এবং সরকারের মধ্যে সহযোগিতার ভিত্তিতে কাজ করার বিষয়ে তার সমর্থনের কথা জানান।

ওয়াটারশেড’এর আনুষ্ঠানিক উদ্ভোধন করেন নেদারল্যান্ডস’এর রাষ্ট্রদূত লিওনি মার্গারেটা কুলেনিয়ার। তিনি বলেন, বাংলাদেশের মতো একটি ব-দ্বীপের প্রেক্ষাপটে পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনায় চ্যালেঞ্জসমূহ মোকাবেলায় এদেশের সরকারকে সহযোগিতার লক্ষ্যে কাজ করার জন্য ডাচ সরকারের দীর্ঘ-ময়াদী পরিকল্পনা রয়েছে। (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)

Comments

comments

একই ধরণের সংবাদ