আপনার অবস্থান
মুলপাতা > অন্যান্য সংবাদ > প্রথম বর্ষপূর্তিতে শ্যামলী সিনেমা হলে ‘আয়নাবাজি’

প্রথম বর্ষপূর্তিতে শ্যামলী সিনেমা হলে ‘আয়নাবাজি’

আয়নাবাজির সাফল্যের অগ্রযাত্রার ধারাবাহিকতায় আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, শনিবার শ্যামলী সিনেমা হলে আসছে আয়নাবাজি। দর্শকদের আয়নাবাজির মুহূর্তগুলা আরেকবার স্মরণ করাতেই আয়নাবাজি মুক্তির এক বছর পূর্তিতে আয়নাবাজি’র স্পেশাল-শো আয়োজন করেছে রাজধানীর শ্যামলী সিনেমা হল কতৃপক্ষ।

দুপুর ১২টার এই স্পেশাল-শো’র টিকেট পাওয়া যাবে তার আগের দিন শ্যামলী হলেই। এই উৎসব মুহূর্তটা আরও আনন্দঘন করতে আয়নাবাজি’র দল এবং কলা কৌসুলি শ্যামলী হলে দর্শকদের সাথে সিনেমাটি আবারও উপভোগ করবেন।

উল্লেখ্য, অমিতাভ রেজা চৌধুরীর পরিচালিত ‘আয়নাবাজি’ সম্পূর্ণ দেশে চিত্রায়িত আর্ন্তজাতিক মানের বহুল প্রশংসিত চলচ্চিত্র। মুক্তির আগে থেকেই দেশি-বিদেশি গণমাধ্যমের আলোচনায় মুখরিত ‘আয়নাবাজি’। ভিন্নধারার দেশীয় এই চলচ্চিত্রটির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হয় যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলে, ইউরোপীয়ান প্রিমিয়ার হয় ম্যানহাইম-হাইডেলর্বাগে, এবং ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার গোয়া ইন্টারন্যশনাল ফিল্ম ফেসটিভালে। এভাবেই বিশ্বের বিভিন্ন নামি-দামি চলচিত্র উৎসবে অনেক প্রশংসা কুড়িয়েছে ‘আয়নাবাজি’।

উল্ল্যেখ্য যুক্তরাষ্ট্রের সাউথ এশিয়ান চলচ্চিত্র উৎসবে বেস্ট নেরেটিভ ফিল্ম এর উপাধি পায় ‘আয়নাবাজি’ এবং সমালচকরা বলছেন তারই ধারাবাহিকতায় দেশীয় চলচ্চিত্র শিল্পে বিশেষ অবদান রাখার জন্য দেশে মেরিল প্রথমআলো অ্যাওয়ার্ডে ২০১৬ এর বেস্ট ফিল্ম এর উপাধি পায়। আর সর্বশেষ কলকাতার টেলি-সিনে সোসাইটির ১৬তম পুরুষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে সেরা চলচ্চিত্রের অ্যাওয়ার্ডও পেয়েছে আয়নাবাজি।

এ বিষয়ে আয়নাবাজি চলচ্চিত্রটির পরিচালক অমিতাভ রেজা চৌধুরীর বলেন, – “আয়নাবাজি দেশের জন্য একটা দৃষ্টান্ত এবং চলচ্চিত্র ইতিহাসে একটি অন্যতম মাইলফলক। যদিও টেলিভিশনে সম্প্রচারিত হয়েছে তবুও দর্শকদের হলমূখী করা প্রয়াসে আবারও সিনেমা হলে ইংরেজি সাবটাইটেলসহ আসছে আপনাদের সকলের প্রিয় ‘আয়নাবাজি’ সিনেমাটি। দর্শকদের আরও একবার বড় পর্দায় সিনেমাটি দেখার সুযোগ করে দেয়ার জন্য শ্যামলী হলের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। আমি মনে করি, হল কতৃপক্ষের এ ধরণের উদ্যোগ আমাদের নতুন সিনেমা বানাতে অনুপ্রেরণা জোগাবে ।”

আয়নাবাজি চলচ্চিত্রটির প্রযোজক ও টপ অব মাইন্ড এর সিইও জিয়া উদ্দিন আদিল বলেন, – “চলচ্চিত্রটি সকল দর্শকদের ভীষন ভালোবাসায় বরণ করে নিয়েছে; তারই প্রতিফলন হচ্ছে সিনেমা হল কতৃপক্ষের এ ধরণের মহৎ উদ্যোগ। প্রাণবন্ত এই চলচ্চিত্রটি আবারও দেখার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য শ্যামলী হল মালিক কতৃপক্ষের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ।”

শ্যামলী সিনেমা হল কতৃপক্ষ জানান – “আয়নাবাজির মত স্মরণীয় একটি ছবির এক বছর পূর্তিতে আমরা শ্যামলী পরিবার থাকতে পেরে খুবিই আনন্দিত এবং গর্বিত।”

Comments

comments

একই ধরণের সংবাদ