আপনার অবস্থান
মুলপাতা > অন্যান্য সংবাদ > নভেম্বর ২ থেকে ঢাকায় শুরু হচ্ছে ভারতীয় প্রকৌশল প্রদর্শনী ‘ইন্ডি’

নভেম্বর ২ থেকে ঢাকায় শুরু হচ্ছে ভারতীয় প্রকৌশল প্রদর্শনী ‘ইন্ডি’

বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ বৃদ্ধির লক্ষ্য নিয়ে ইইপিসি (ইঞ্জিনিয়ারিং এক্সপোর্ট প্রোমশন কাউন্সিল) ইন্ডিয়া বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো আয়োজন করছে ইন্ডিয়া-বাংলাদেশে ইন্ডি। ইইপিসি ইন্ডিয়া কর্তৃক আয়োজিত এই প্রকৌশল প্রদর্শনী আগামী ২-৪ নভেম্বর রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হবে।

আজ রাজধানীর প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রদর্শনী সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য উপস্থাপন করেন ইইপিসি ইন্ডিয়ার নির্বাহী পরিচালক ও সচিব ভাস্কর সরকার। তিনি জানান, ভারত সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয় এবং ঢাকাস্থ ভারতীয় দূতাবাসের সহযোগিতায় আয়োজিত এই প্রদর্শনীতে সরকারি ও বেসরকারি খাতের ১০০টি শীর্ষস্থানীয় ভারতীয় প্রতিষ্ঠান তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেছে।

ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কর্মাস এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই) ইন্ডিয়া-বাংলাদেশ চেম্বার অব কর্মাস এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (আইবিসিসিআই), বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্প মালিক সমিতি এবং বাংলাদেশ ইলেকট্রিক্যাল পণ্য ব্যবসায়ী সমিতিও এই প্রদর্শনী আয়োজনে সহায়তা প্রদান করছে। এই প্রদর্শনীর অন্যতম অংশগ্রহণকারী হচ্ছে ভারতের পশ্চিম বঙ্গ সরকার।

প্রদর্শনীতে প্রায় ১০,০০০ ব্যবসায়ী প্রতিনিধির আগমন ঘটবে এবং অর্ডার বুকিং, প্রযুক্তি হস্তান্তর এবং যৌথ শিল্প স্থাপনে তারা উদ্যোগী হবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

‘ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন, পাওয়ার গ্রিড কর্পোরেশন, সেন্ট্রাল পাওয়ার রিসার্চ ইনস্টিটিউট, রাইটসসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণ এটাই প্রমাণ করে যে, বাংলাদেশের সঙ্গে সার্বিকভাবে অর্থনৈতিক যোগাযোগ স্থাপনে ভারত কতটা আগ্রহী। দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ছাড়াও এখন মূল লক্ষ্য হচ্ছে হাই-টেক জয়েন্ট ভেঞ্চারে বিনিয়োগ বৃদ্ধি, যার মধ্যে প্রযুক্তি হস্তান্তরও অন্তর্ভুক্ত থাকবে।’

তিনি জানান, ইইপিসি ইন্ডিয়া বিশ্বের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ শহরে ‘ইন্ডি’ প্রদর্শনীর আয়োজন করে আসছে এবং ঢাকার প্রদর্শনীটি হবে ৩৭তম।

বাংলাদেশে ভারতীয় দূতাবাসের কমার্শিয়াল এটাসে জি. সুধাকরন বলেন, বাংলাদেশ-ভারতের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ট্রেডিং পার্টনার। বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছর বিপুলসংখ্যক প্রতিষ্ঠান ইইপিসি ইন্ডিয়া আয়োজিত ‘ইন্টারন্যাশনাল ইঞ্জিনিয়ারিং সোর্সিং শো’তে অংশগ্রহণ করে থাকে। বাংলাদেশ যেভাবে তার অর্থনীতির রূপান্তর ঘটাচ্ছে এবং প্রতিযোগিতামূলক ম্যানুফেকচারিংয়ে তার সক্ষমতা প্রদর্শন করছে, ভারত তার প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে আসছে। তৃতীয় দেশে ম্যানুফেকচারিংয়ের উভয় দেশ একে অপরের সম্পূরক সহযোগী হিসেবে কাজ করতে পারে।

ভারত সরকারের কয়েকজন সিনিয়র কর্মকর্তা ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য ইন্ডি’তে অংশগ্রহণ করবেন এবং বাণিজ্য ও বিনিযোগ সংক্রান্ত কয়েকটি সেমিনারে বক্তব্য রাখবেন।

এই প্রদর্শনীর প্রচার ও প্রচারণার সমন্বয় করছে ইন্ডিয়া ব্র্যান্ড ইক্যুইটি ফাউন্ডেশন (আইবিইএফ)।

Comments

comments

একই ধরণের সংবাদ