আপনার অবস্থান
মুলপাতা > শিল্প ও খাতসমূহ > বিদ্যুৎ ও জ্বালানী > রাশিয়ার সর্বাধুনিক পারমাণবিক প্রযুক্তি পরিদর্শনে আন্তর্জাতিক প্রতিনিধিদল

রাশিয়ার সর্বাধুনিক পারমাণবিক প্রযুক্তি পরিদর্শনে আন্তর্জাতিক প্রতিনিধিদল

অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় কর্মরত আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি সংস্থাসহ (আইএইএ) বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে গঠিত ৪২ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল সম্প্রতি রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গ সফর করেন। এ সময় তারা রাশিয়ার সর্বাধুনিক পারমাণবিক শক্তি প্রযুক্তি সংবলিত বিভিন্ন প্রকল্প পরিদর্শন করেন।

প্রতিনিধিদল যেসব প্রকল্প ঘুরে দেখে তার মধ্যে রয়েছে- লেনিনগ্রাদ পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের দ্বিতীয় ধাপে নির্মীয়মাণ ৩+ প্রজন্মের প্রযুক্তি (ভিভিইআর-১২০০) নির্ভর একটি পারমাণবিক বিদ্যুৎ ইউনিট।

এখানে উল্লেখ্য, বিশ্বে এটিই হচ্ছে ৩+ প্রজন্মের দ্বিতীয় পারমাণবিক বিদ্যুৎ ইউনিট। ইতোপূর্বে প্রথম বিদ্যুৎ ইউনিটটি রাশিয়ার নভোভারোনেঝে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু করেছে। এই প্রজন্মের বিদ্যুৎ ইউনিটগুলো সর্বাধিক নিরাপদ বলে বিবেচিত। বাংলাদেশে পাবনা জেলার রূপপুরে অনুরূপ দুটি পারমাণবিক বিদ্যুৎ ইউনিট নির্মাণ করছে রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পারমাণবিক শক্তি সংস্থা- রসাটম।

প্রতিনিধিবৃন্দকে বাল্টিক জাহাজ নির্মাণ কারখানা, ভাসমান পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র- একাডেমিক লামানোসভ এবং পারমাণবিক শক্তিচালিত নতুন প্রজন্মের আইস্ ব্রেকার ঘুরে দেখানো হয়।

অস্ট্রিয়া, ব্রাজিল, চীন, জর্ডান, হাঙ্গেরি, পানমা, পেরু, দক্ষিণ আফ্রিকা, সুদান, সিঙ্গাপুর, সুইজারল্যান্ড, থাইল্যান্ডসহ অন্যান্য দেশের কূটনীতিক এবং পরমাণু বিশেষজ্ঞরা অন্তর্ভুক্ত ছিলেন প্রতিনিধিদলে।

ভিয়েনায় কর্মরত একটি আন্তর্জাতিক সংস্থার রুশ প্রতিনিধি ভøাদিমির ভারোনকভের মতে, এ সফরের মূল বিষয় ছিল পরমাণু শক্তি ও পরিবেশ। লেনিনগ্রাদ পারমাণবিক শক্তি কেন্দ্রটি প্রমাণ করে যে, পরমাণু শক্তি প্রকৃত অর্থেই ‘গ্রিন’।

প্রতিনিধিরা সফরকালে তাদের মনে উদিত বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর খুঁজে পেয়েছেন এবং এ ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েছেন যে, রুশ পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে নিরাপদ।

আইএইএর বোর্ড অব গভর্নরের চেয়ারম্যান টেবোগো সিওকোলো কার্যক্রমে রাশিয়ার ভূমিকার কথার উল্লেখ করে বলেন, ‘আমাদের জন্য দেখা এবং শেখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, কিভাবে রাশিয়া আইএইএর কিছু গাইড লাইন বাস্তবায়ন করছে, অব্যাহতভাবে নতুন নতুন আবিষ্কার করে যাচ্ছে এবং পারমাণবিক প্রযুক্তি, নিরাপত্তা, সুরক্ষা, পরমাণু সংস্কৃতির ক্ষেত্রে যেসব উন্নয়ন সাধন করছে।’

রাশিয়া আইএইএর শীর্ষস্থানীয় এবং এর বোর্ড অব গভর্নরসের অন্যতম সদস্য।

Comments

comments

একই ধরণের সংবাদ