আপনার অবস্থান
মুলপাতা > শিল্প ও খাতসমূহ > তথ্য প্রযুক্তি > আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলকের সাথে ইউএন আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেলের সৌজন্য স্বাক্ষাতকার

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলকের সাথে ইউএন আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেলের সৌজন্য স্বাক্ষাতকার

ইউএনএসকাপ সদস্যভূক্ত দেশগুলোর মধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বাংলাদেশের দৃশ্যমান অগ্রগতির ফলে বাংলাদেশ আজ রোল মডেল। সদস্যভূক্ত দেশগুলো পারস্পরিক বেস্ট প্র্যাকটিসগুলো আরো বেশী মাত্রায় অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে প্রয়োগ করলে, এ অঞ্চল তথ্যপ্রযুক্তি খাতে আন্তর্জাতিক মানদন্ডে এগিয়ে থাকবে।

আজ সকালে জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল ও ইউএন-এসকাপ (ঊপড়হড়সরপ ধহফ ঝড়পরধষ ঈড়সসরংংরড়হ ভড়ৎ অংরধ ধহফ ঃযব চধপরভরপ) এর এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারি সামসাদ আক্তার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলকের সাথে তাঁর আগারগাঁওস্থ কার্যালয়ে এক সৌজন্য স্বাক্ষাতে এ কথা বলেন।

সাম্প্রতিক সময়ে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের বার্ষিক সম্মেলনে প্রকাশিত সুষম উন্নয়নের অগ্রগতির সূচকে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান ৩৬তম হওয়ায় জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের ভূয়সী প্রসংশা করেন।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী পলক বাংলাদেশকে ইউএন-এসকাপের পরবর্তী স্টিয়ারিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত করায় ইউএন-এসকাপ এর নির্বাহী সেক্রেটারি সামসাদ আক্তারকে ধন্যবাদ জানান এবং এশিয়া-প্যাসিফিক ইনফরমেশন সুপার হাইওয়েতে সদস্যভূক্ত দেশগুলোকে একক নেটওয়ার্কে সংযুক্ত করতে একটি চূড়ান্ত প্রস্তাব ইউএন-এসকাপের আগামী বৈঠকে বাংলাদেশ উপস্থাপন করবে বলে জানান এবং ইউএন-এসকাপ এর এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারি ও সদস্য রাষ্ট্রের সহযোগিতা ও সমর্থন কামনা করেন।

এসডিজি’র উদ্দেশ্য পূরণে সুস্বাস্থ্য, গুণগত শিক্ষা, উদ্ভাবন, স্মার্ট সিটি’র মত লক্ষ্যসমূহ অর্জনে অন্তর্ভূক্তিমূলক ইন্টারনেট (ইনক্লুসিভ-ইন্টারেনট) এর আওতায় নিয়ে আসতে আইসিটি ডিভিশনের কর্মকান্ড, সাইবার নিরাপত্তায় গৃহিত কার্যক্রম, উদ্ভাবন ও স্টার্ট-আপ উদ্যোগে সহযোগিতা প্রদান, ভেঞ্চার ক্যাপিটাল গাইড লাইন প্রণয়ন, আর্থিক লেনদেন ইত্যাদিতে প্রযুক্তির ব্যবহারসহ ডিজিটাল বাংলাদেশের সার্বিক কর্মকান্ড জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারিকে অবহিত করে পলক এ সময় আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ এগিয়ে চলেছে যার প্রতিফলন সর্বত্র।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার, অতিরিক্ত সচিব হারুনুর রশিদ, অতিরিক্ত সচিব সুশান্ত কুমার সাহা, আইসিটি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বনমালী ভৌমিক, বাংলাদেশ উইমেন ইন আইটি সভাপতি লুনা সামসুজ্জোহা প্রমূখ।

উল্লেখ্য যে, গত বছরের ৪ অক্টোবরে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককে ইউএন-এসকাপ ও ইন্টারনেট সোসাইটি কর্তৃক আয়োজিত উচ্চ পর্যায়ের এক ফোরামে ইউএন-এসকাপের সদস্যভূক্ত দেশগুলোকে এশিয়ান-প্যাাসিফিক ইনফরমেশন সুপার হাইওয়েতে যুক্ত করার প্রস্তাব দিলে ফোরাম বাংলাদেশের এ প্রস্তাবকে সমর্থন করেন এবং বাংলাদেশকে পরবর্তী এক বছরের জন্য এশিয়া-প্যাসিফিক ইনফরমেশন সুপার হাইওয়ে ওয়ার্কিং গ্রুপের চেয়ারম্যন নির্বাচিত করে।

Comments

comments

একই ধরণের সংবাদ