আপনার অবস্থান
মুলপাতা > কর্পোরেট নিউজ > জিংক সমৃদ্ধ চাল বাজারজাত করবে প্রাণ

জিংক সমৃদ্ধ চাল বাজারজাত করবে প্রাণ

ভোক্তাদের কাছে উচ্চ জিংক সমৃদ্ধ চাল সহজলভ্য করতে এখন থেকে যৌথভাবে কাজ করবে দেশের শীর্ষস্থানীয় খাদ্যপণ্য উৎপাদন ও রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান প্রাণ ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান হারভেস্টপ্লাস। এ লক্ষ্যে বুধবার রাজধানীর প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের প্রধান কার্যালয়ে প্রতিষ্ঠান দুটির মধ্যে এক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে হারভেস্টপ্লাস এর পরিচালক (রিসার্চ ও ডেভেলপমেন্ট) উলফগ্যাঙ ফাইফার (Wolfgang Pfeiffer) বলেন, মানুষের স্বাভাবিক বৃদ্ধি ও রোগ প্রতিরোধে অন্যতম পুষ্টি উপাদান জিংকের অভাবে বাংলাদেশে প্রায় ৩৬ ভাগ শিশু ও ৫৭ ভাগ নারী মারাতœক অপুষ্টিতে ভোগেন। এছাড়া ৪৪ ভাগ কিশোরীর শারীরিক বৃদ্ধি ব্যাহত হয়।

তিনি আরো বলেন, জিংক সমৃদ্ধ চাল ভোক্তাদের দৈনন্দিন জিংকের চাহিদার ৬০ ভাগ পর্যন্ত পূরণ করতে সক্ষম। এ জন্য হারভেস্টপ্লাস এই ধানের উন্নয়ন ও গবেষণায় কাজ করে যাচ্ছে। এ পর্যন্ত চার ধরনের জিংক সমৃদ্ধ ধান উদ্ভাবিত হয়েছে।

প্রাণ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইলিয়াছ মৃধা জানান, জিংক সমৃদ্ধ ধান উৎপাদনে ৬২ টি জেলায় কৃষকের সাথে কাজ করছে হারভেস্টপ্লাস। প্রাণ উত্তরাঞ্চলের জেলাগুলো থেকে হারভেস্টপ্লাস এর সহায়তায় জিংক সমৃদ্ধ ধান ক্রয় করে বাজারজাত করবে। এতে কৃষকরা ন্যায্য মূল্যে ধান বিক্রির নিশ্চয়তা পাবেন। অন্যদিকে ভোক্তারা সহজেই বাজার থেকে এই চাল সংগ্রহ করতে পারবেন।

প্রাণ এগ্রো বিজনেস লিমিটেড এর প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা মাহতাব উদ্দিন ও হারভেস্টপ্লাস এর পরিচালক উলফগ্যাঙ ফাইফার নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে ওই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। এসময় হারভেস্টপ্লাস বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার খায়রুল বাশারসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, হারভেস্টপ্লাস আন্তর্জাতিক কৃষি গবেষণার পরামর্শদাতা প্রতিষ্ঠান সিজিআইএআর (CGIAR) এর একটি উদ্যোগ যা এশিয়া ও আফ্রিকার বিভিন্ন খাদ্যশস্যে জিংক, লৌহ, ভিটামিন ‘এ’ বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করে আসছে।(প্রেস রিলিজ)

Comments

comments

একই ধরণের সংবাদ