আপনার অবস্থান
মুলপাতা > কর্পোরেট নিউজ > গ্রামীণফোনের নতুন প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা হচ্ছেন কাজী মোহাম্মদ শাহেদ

গ্রামীণফোনের নতুন প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা হচ্ছেন কাজী মোহাম্মদ শাহেদ

গ্রামীণফোন কাজী মোহাম্মদ শাহেদকে কোম্পানির নতুন প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা (সিএইচআরও) হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে। তিনি আগামী ১ এপ্রিল থেকে বিদায়ী সিএইচআরও মোঃ শরিফুল ইসলাম এর স্থলাভিষিক্ত হবেন।

কাজী মোহাম্মদ শাহেদ টেলিনর ইন্ডিয়ার সিএইচআরও হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি দ্বিতীয়বারের মতো গ্রামীণফোনের সিএইচআরও হিসেবে যোগ দিচ্ছেন। তিনি ২০১৫ এর আগস্টে টেলিনর ইন্ডিয়াতে যোগ দেন এবং তার পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ২৮ বছর কর্ম অভিজ্ঞতা আছে। ২০১২ এর নভেম্বরে গ্রামীণফোনে যোগ দেয়ার আগে তিনি ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোতে উৎপাদন খাতে এবং সিএইচআরও হিসেবে বিভিন্ন দেশে কর্মরত ছিলেন। তিনি বাংলাদেশ, ইরান, পাকিস্তান, মালয়শিয়া এবং যুক্তরাজ্যে উচ্চপদে কাজ করেছেন।

গ্রামীণফোনে ফিরে আসতে পেরে উচ্ছসিত শাহেদ বলেন যে তিনি দেশে ফিরে এসে শরিফের অসাধারণ কর্মকান্ডগুলো চালিয়ে নিতে উম্মুখ ঞয়ে আছেন।  তিনি আরো বলেন যে ভারতের দ্রুত পরিবর্তনশীল ব্যবসায়িক পরিবেশে তার অভিজ্ঞতা তাকে প্রয়োজনীয় প্রাতিষ্ঠানিক দক্ষতা চিহ্নিত করা শিখিয়েছে এবং তিনি সেই অভিজ্ঞতা  গ্রামীণফোনের মানবসম্পদ উন্নয়নে ব্যবহার করতে চান।

গ্রামীণফোনের সিইও পেটার বি ফারবার্গ শাহেদকে স্বাগত জানাতে গিয়ে বিদায়ী সিএইচআরও শরিফকে শুভকামনা জানান। তিনি বলেন,” শরিফ গ্রামীণফোনের মানবসম্পদ আর সংগঠন বিষয়ে যে অবদান রেখেছেন তা কোম্পানিকে একটি শক্তিশালী অবস্থানে নিয়ে গেছে। শাহেদ ইতোমধ্যেই টেলিনরে বিভিন্ন বড় পরিবর্তন আনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন এবং আমি গ্রামীণফোনের চলমান রূপান্তর প্রক্রিয়ায় তার দিক নির্দেশনার অপেক্ষায় আছি।”

শাহেদ বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যন্ত্র প্রকৌশলে স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করেন এবং তার ব্যবসায় প্রশাসনে স্নাতোকোত্তর ডিগ্রী আছে।

বিদায়ী সিএইচআরও মোঃ শরিফুল ইসলাম ২০০৬ এ গ্রামীণফোনে যোগ দেন এবং বিগত দশ বছরে গ্রামীণফোন এবং টেলিনর এ প্রাতিষ্ঠানিক উন্নয়ন, নিয়োগ, মানবসম্পদ কৌশল উন্নয়ন ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ে কাজ করেছেন। তিনি অন্য শিল্পে কাজ করতে গ্রামীণফোন ছেড়ে যাচ্ছেন।

Comments

comments

একই ধরণের সংবাদ