আপনার অবস্থান
মুলপাতা > কর্পোরেট নিউজ > এনসেল’র নতুন ম্যানেজিং ডিরেক্টর সুরেন জে. আমারাসেকারা

এনসেল’র নতুন ম্যানেজিং ডিরেক্টর সুরেন জে. আমারাসেকারা

নেপালের শীর্ষ জিএসএম মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান এনসেলের নতুন ম্যানেজিং ডিরেক্টর হিসেবে সম্প্রতি নিয়োগ পেয়েছেন সুরেন জে. আমারাসেকারা। অন্যদিকে আজিয়াটার হেড অফিসে সাউথ এশিয়া অপারেশন বিভাগে যোগ দেবেন পূর্ববর্তী ম্যানেজিং ডিরেক্টর সিমন জন পারকিনস।

টেলিযোগাযোগ শিল্পে ২৫ বছরের অভিজ্ঞতা রয়েছে আমারাসেকারার, এর মধ্যে ৯ বছর সিইও হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। এছাড়া সিঙ্গাপুর টেলিকমিউনিকেশনস লিমিটেড (সিঙ্গাপুর), শ্রীলঙ্কার মোবাইল ফোন অপারেটর মোবিটেল (শ্রীলঙ্কা), ম্যাক্সিস বারহাদ (মালয়েশিয়া) ও এয়ারসেল লিমিটেডে (ভারত) জ্যষ্ঠ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

আমারাসেকারা এনসেলের ম্যানেজিং ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে এনসেলের বোর্ড অব ডিরেক্টরস। ভারত, মালয়েশিয়া, শ্রীলঙ্কা ও সিঙ্গাপুরের বৈশ্বিক মানসম্পন্ন টেলিযোগাযোগ কোম্পানিতে অভিজ্ঞতা থাকায় তার নেতৃত্বে এনসেল নতুন মাইলফলক অর্জন করবে এবং নেপালের সামগ্রিক অগ্রগতির লক্ষ্যে ডিজিটাল সেবার আরো প্রসার ঘটবে বলে বোর্ড আশাবাদী।

বিদায়ী ম্যনেজিং ডিরেক্টর সিমন পারকিনসের নেতৃত্বে এনসেলে বড় ধরনের অগ্রগতি এসেছে বলে তাকে ধন্যবাদ জানিয়েছে বোর্ড অব ডিরেক্টরস। এনসেলে তিনি তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন।

এনসেলের নতুন ম্যানেজিং ডিরেক্টর সুরেন জে. আমারাসেকারা বলেন, “এ দায়িত্ব গ্রহণের সুযোগ পেয়ে আমি আনন্দিত। এনসেলে যোগ দেয়ার পর অপারেটরটিকে একটি জনপ্রিয় ব্র্যান্ডে পরিণত করা এবং ডিজিটাল নেপাল গড়ে তোলার রূপকল্প বাস্তবায়নে সহযোগী ভূমিকা পালনের পাশাপাশি এশিয়াকে এগিয়ে নিতে আজিয়াটার লক্ষ্য বান্তবায়নে কাজ করে যাওয়ার স্বপ্ন দেখছি আমি।”

এনসেলে যোগদানের আগে আমারাসেকারা মালয়শিয়ার কুয়ালালামপুরে আজিয়াটা গ্রুপ বারহাদের কর্পোরেট হেডকোয়ার্টারে স্ট্র্যাটেজিক প্রজেক্ট ডিরেক্টর হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বাংলাদেশ, নেপাল শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানে দক্ষিণ এশীয় কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন তিনি।

এর আগে ২০১৪ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত আমারাসেকারা এয়ারসেল লিমিটেডের চিফ এন্টারপ্রাইজ অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এ সময় তিনি পুরো ভারতের ফোরজি/এলটিই সার্ভিস, এন্টারপ্রাইজ, হোলসেল ও ক্যারিয়ার বিসনেসের পি অ্যান্ড এল’র (প্রফিট অ্যান্ড লস) বিষয়টি দেখাশোনা করেছেন। এয়ারসেলে যোগদানের আগে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে ম্যাক্সিস বারহাদের জয়েন্ট সিওও হিসাবে কাজ করেছেন তিনি। মালয়েশিয়ায় প্রথম বাণিজ্যিকভাবে ফোরজি চালু করার ক্ষেত্রে আমারাসেকারা ম্যাক্সিসে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। ম্যাক্সিস বারহাদে থাকাকালে তিনি ব্রিজ অ্যালায়েন্সের বোর্ড মেম্বার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ব্রিজ অ্যালায়েন্স হচ্ছে ৭৫ কোটি গ্রাহককে সেবা প্রদানকারী শীর্ষস্থানীয় ৩৭টি মোবাইল ফোন অপারেটরের একটি নেতৃস্থানীয় জোট।

এর আগে আমারাসেকারা ১৩ বছরেরও বেশি সময় সিঙ্গাপুরের সিংটেলে বিভিন্ন সিনিয়র ম্যানেজমেন্ট পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। তারপর শ্রীলঙ্কার মোবাইল ফোন অপারেটর মোবিটেলের সিইও হিসাবে ছয় বছর দায়িত্ব পালন করেন তিনি। পাঁচটি অপারেটর নিয়ে তুমুল প্রতিযোগিতামূলক বাজারে মোবিটেলকে তিনি দ্বিতীয় অবস্থানে নিয়ে গেছেন।

বিভিন্ন দেশের টেলিযোগাযোগ বাজারে কাজের মাধ্যমে তিনি যে বৈচিত্র্যময় অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন তা এনসেলকে এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

আমারাসেকারা যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের সিরাকাস ইউনিভার্সিটি থেকে ব্যাচেলর অব সায়েন্স এবং কম্পিউটার সিস্টেম ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে মাস্টার অব সায়েন্স ডিগ্রি লাভ করেন। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয়েস’র ইউনিভার্সিটি অব শিকাগো’র বুথ স্কুল অব বিজনেস থেকে মাস্টার অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি।

Comments

comments

একই ধরণের সংবাদ